Home > All Updates > দিনের শুরু হোক বা শেষ, একাকিত্বের নিরাপদ আশ্রয়ই হলো এক চিলতে বারান্দা – কিভাবে সাজাবেন তাকে
All UpdatesBengaliLifestyle

দিনের শুরু হোক বা শেষ, একাকিত্বের নিরাপদ আশ্রয়ই হলো এক চিলতে বারান্দা – কিভাবে সাজাবেন তাকে

বাড়ির এই এক চিলতে পরিসরেই খেলা করে সূর্যের আলো, বৃষ্টির শীতলতা, শীতের ওম আর কত মুহূর্ত, কত ভালোবাসা!  তাকে সঙ্গী করেই বারান্দাতে বসান আড্ডার আসর

ফ্ল্যাট হোক বা নিজের বাড়ি, মনখারাপের মুহূর্তে আজও মানুষ আস্তানা খোঁজে এক চিলতে বারান্দায়, সেখানে দাঁড়িয়েই চোখ চলে যায় ইতিউতি, আবার আনন্দও ভাগ করে নিতে ইচ্ছে হয় আকাশ আর রোদ্দুরের সঙ্গে। আর এই গল্পটা আমাদের সকলের, অর্থাৎ বারান্দা নিয়ে বিলাসিতা আমাদের সকলেরই থাকে। আর তাই অন্তর থেকে ভালোবাসা দিয়ে সামান্য সাজালেই সে হয়ে উঠবে আপনার ‘ভাল-বাসা’। বারান্দা মানেই গ্রীষ্মের দিনে জামাকাপড় শুকোতে দেওয়া বা শীতের গরম ওম গায়ে লাগান, এমন ধারণ এবার পালটে ফেলুন।  এখন বারান্দাতেই জমুক আপনার আড্ডার আসর।

picture Source-Google

সকাল থেকে সান্ধ্যকালীন

বারান্দা যদি একটু বড় হয়, সেখানে ছোটো খাটো টেবিল চেয়ারের ব্যবস্থা করতেই পারেন। ঘুম ভেঙে চায়ের কাপে হোক বা সন্ধ্যের বাসন্তী হাওয়ায় মেজাজ ফুরফুরে হতে বাধ্য, তাছাড়াও রোজ রোজ চারদেয়ালের মধ্যে বসে খাওয়ার একঘেয়েমিও কাটবে। একটু অন্যভাবে সাজাতে পারেন বারান্দার আসবাব। সাধারণ প্লাস্টিকের  চেয়ারের বদলে রাখতে পারেন বেতের মোড়া। টেবিলে থাক কিছুটা কাঠের ছোঁয়া৷

Also Read কোনোরকম শারীরিক মিলন ছাড়াই প্রেগন্যান্সি টেস্টের রিপোর্ট আসছে পজিটিভ – কি তার কারণ? কিভাবেই বা করাবেন এর চিকিৎসা

গালচে পাতা সবুজ বিছানা

অনেকেই বারান্দাতে ছোট ছোট গাছ লাগান। সেক্ষেত্রে এমন গাছ বাছুন যা সহজেই পরিচর্যা করা যায়৷ যদি ফ্ল্যাট হয় এবং সেই ফ্ল্যাটের মূল অংশ থেকে বারান্দার অংশ টি বিচ্ছিন্ন থাকে,তাহলে বারান্দাতেই হোক আপনার সাধের বাগান৷ বারান্দার মেঝেতেই করুন সবুজ ঘাসের গালিচা। মানিপ্ল্যান্ট জাতীয় লতানো গাছ থাকুক রেলিঙের ধার দিয়ে। এক কোণে অবশ্যই রাখুন বেতের চেয়ার৷ ঘরের দরজা পেরিয়ে বারান্দায় পা রাখতেই পোঁছে যাবেন সবুজ দুনিয়ায়।

রাত্রির মুহূর্ত যাপন

সুখী দাম্পত্য চমক আর সময় দুটোই খুব প্রয়োজনীয়। সারাদিন কর্মক্ষেত্রের নানারকম স্ট্রেস, খাটনিতে সে অবসর পাওয়া দুষ্কর। তাড়াতাড়ি ফিরে বারান্দায় ঝুলিয়ে দিন নরম আলো আর মোটা গালচে পাতা মেঝেতে ছড়িয়ে দিন নরম কুশন। বাহারি ট্রে-তে রাখুন প্রিয়জনের পছন্দের স্ন্যাকস। বাজতে থাকুক নরম মিউজিক৷ বারান্দাকে সঙ্গী করে সম্পর্কেও থাক ভালোবাসার ছোঁয়া।

Also Read রাত জেগে ফেসবুকে চ্যাট? চিন্তার কোনো কারণ নেই আর- চোখ বাঁচাতে নয়া প্রযুক্তি আনলো ফেসবুক

বারান্দাতেই হোক মিনি বার

রোদের আড়াল থেকে বাঁচতে বারান্দা তে থাকুক চিক লাগানোর ব্যবস্থা। ফলে জারি থাকবে বারান্দার আমেজ, রোদ জলও ভিতরে প্রবেশ করতে পারবেনা। উপরে ক্যাবিনেট লাগিয়ে ঝুলিয়ে দিন কাঁচের গ্লাস। ফ্রিজে রাখুন নানারকম ফলের রস, স্মুদি ও নানারকম পানীয়। আলো রাখুন নীলচে। বাড়ির বারান্দাই হোক মিনি বার৷

এসব ছাড়াও অনেকেই বারান্দায় দোলনা রাখতে পছন্দ করেন, কিন্তু জায়গার অভাবে অনেকসময়ই তা সম্ভব হয় না। এক্ষেত্রে সিলিং থেকে ঝুলিয়ে দিতে পারেন দোলনা। পাশের ছোট্ট টেবিল রেখে তার উপর থাক বই, কফির কাপ। বারান্দায় মুহূর্ত যাপন হোক সারাদিনের অক্সিজন।