Home > All Updates > জেনে নিন যেভাবে”Act East Policy” হয়ে গেল বিজেপির ত্রিপুরা জয়ের কারন
All UpdatesBengaliGuest PostNationalTripura

জেনে নিন যেভাবে”Act East Policy” হয়ে গেল বিজেপির ত্রিপুরা জয়ের কারন

2014 সালে বিপুল পরিমান জনসমর্থনে কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসে বিজেপি সরকার। কিন্তু তখনও পর্যন্ত উত্তর-পুর্ব ভারতে কোনদিনও সরকার গঠন করতে পারেনি বিজেপি। তাই  2014 সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই উত্তর-পুর্ব ভারতে সরকার গঠনের জন্য তীব্র উৎসাহ দেখায় মোদি সরকার। উত্তর-পুর্ব ভারতে নিজেদের জনসংযোগ বৃদ্ধি ও উন্নয়ন প্রকল্পে একের পর এক গৃহীত হতে থাকে বিভিন্ন পরিকল্পনা এবং তার বাস্তব রুপায়ন যা “Act East Policy” নাম দেওয়া হয়। আসুন দেখেনি উত্তর-পুর্ব ভারতের উন্নয়নে কী প্রভাব ফেলেছে এই Act East Policy :-

Picture Source – Google
  • রেল সংযোগ স্থাপন :- 2008 সালে একটি মিটার গজ্  রেল লাইন চালু হওয়ার আগে পর্যন্ত ত্রিপুরার দেশের বাকি অংশের সাথে কোনও যোগাযোগ ছিল না। কিন্তু কেন্দ্রে সরকার গঠনের পরই মোদি সরকার এই মিটার গজ্ রেল লাইন কে ব্রড গজ্ রেল লাইনে বদল করে যার আওতায় প্রায় 900 কি.মি. রেল লাইন চলে আসে। দিল্লীর সাথে সংযোগ স্থাপনের জন্য রাজধানি এক্সপ্রেস ও ত্রিপুরা সুন্দরী এক্সপ্রেস চালু করা হয়। এছাড়াও তৎকালীন রেল মন্ত্রী সুরেশ প্রভু প্রায় 2315 কোটি টাকার বিনিয়োগে ধানসিড়ি-কোহিমা রেলট্র্যাক নির্মান করেন যার ফলে কোহিমা জাতীয় রেলের আওতায় চলে আসে। এছাড়াও বাংলাদেশের সাথে ভালো রেল যোগাযোগ সম্প্রসারনের জন্য গুরুত্বপুর্ন ব্যাবস্থা নেওয়া হয় যারফলে আমদানি-রপ্তানি ব্যাবসায় দারুন গতি আসে।
  • উন্নত সড়ক পথ ব্যাবস্থা :- “Transformation by transportation” উন্নত যোগাযোগ ব্যাবস্থা স্থাপনে এটাই ছিল মোদি সরকারের মুলমন্ত্র। এবং একথা মাথায় রেখেই প্রায় 32000 কোটি টাকার বিনিময়ে প্রায় 3800 কি.মি. জাতীয় সড়কপথ নির্মানের কথা তিনি ঘোষনা করেন, যার মধ্যে প্রায় 1200 কি.মি. রাস্তা ইতিমধ্যেই নির্মিত হয়ে গেছে। 2017 সালের একটি জনসভায় নরেন্দ্র মোদি ঘোষনা করেন যে উত্তর-পুর্ব ভারতের সড়কপথ ব্যাবস্থায় গতি আনার জন্য প্রায় 60000 কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে এবং ভারতমালা প্রোজেক্ট-এ আরও 30000 কোটি টাকা তিন বছর ধরে বিনিয়োগ করা হবে। এই প্রকল্পের ফলস্বরুপ মেঘালয়ের তুরা থেকে শিলং পর্যন্ত 271 কি.মি. দীর্ঘ জাতীয় সড়ক নির্মান করা হয়।
  • এয়ারপোর্ট কানেক্টিভিটি :- আকাশপথে যোগাযোগ ব্যাবস্থার গতি আনতে “Airport authority of India” প্রায় 3400 কোটি টাকার বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেয় যার মধ্যে 1000 কোটিরও বেশি টাকা সমগ্র উত্তর-পুর্ব ভারতের এয়ারপোর্ট গুলির উন্নয়ন প্রকল্পে ইতিমধ্যেই ব্যায় করা হয়েছে। শিলচর আর লীলাবাড়ি এয়ারপোর্টে উন্নতমানের রানওয়ে নির্মান এবং আগরতলায় রুপসী এয়ারপোর্ট নির্মান এই প্রকল্পের ফল।
  • অন্যান্য :- 1998 সালে অটলজি একটি স্বপ্ন দেখেন যে উত্তর-পুর্ব ভারতে মিজোরামে জলবিদ্যুৎ প্রকল্প শুরু করার। 2017 সালে নরেন্দ্র মোদি 60 মেগাওয়াট তুইরিয়াল জলবিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মান করেন যা মিজোরামের প্রথম ও উত্তর-পুর্ব ভারতের তৃতীয় জলবিদ্যুৎ প্রকল্প। আগে কোনও প্রকল্পের 90 শতাংশ কেন্দ্রীয় সরকার বিনিয়োগ করত কিন্তু বর্তমানে 100 শতাংশ বিনিয়োগের দ্বায়িত্বভার কেন্দ্রীয় সরকার বহন করে। এছাড়াও ভারত-মায়ানমার-থাইল্যান্ড জুড়ে 1360 কি.মি.- এর টাইল্যাটারেল হাইওয়ে নির্মানের কথা ঘোষনা তরা হয়েছে যা সম্ভবত 2020 নাগাদ সম্পুর্ন তৈরী হয়ে যাবে।

Also Read Career In Food Nutration

2018-19 সালের বাজেটে বাঁশ কে গাছ হিসেবে চিহ্নিত না করে বাঁশ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। গাছ হিসেবে চিহ্নিত করলে তার উৎপাদন, বিক্রয় প্রভৃতিতে যে বিধিনিষেধ আসে ঘাস হিসেবে চিহ্নিত করার ফলে তা অনেকাংশে লাঘব করা যায়। উত্তর-পুর্ব ভারতের গ্রাম্য অর্থনিতীর মেরুদন্ড হল বাঁশ। তাই এই বিধিনিষেধ দুর হওয়ার ফলে উত্তর-পুর্ব ভারতের গ্রাম্য অর্থনিতী দ্রুত ত্বরান্বিত হয়।

বিজেপি-র এই Act East Policy যে কতটা সফল হয়েছে তা উত্তর-পুর্ব ভারতে বিজেপি-র বর্তমান সাফল্যই বর্ননা করে। অরুনাচল প্রদেশ, ত্রিপুরা, আসাম, মনিপুর সবকটা রাজ্যেই আজ বিজেপি সরকার গঠন করতে পেরেছে। কিন্তু এখনো উত্তর-পুর্ব ভারতের উন্নয়ন যজ্ঞে কোনও খামতি পড়েনি। এই অ্যাক্ট ইষ্ট পলিসি কে আরও বড় মাত্রা দেওয়ার প্রচেষ্টা বিজেপি সরকার অনবরত করে চলেছে। এই পলিসির বাস্তবায়নের ফলে বিদেশ থেকে উত্তর-পুর্ব ভারতে বিনিয়োগ আনার ক্ষেত্র তৈরী হয়েছে যা এখানকার সাধারন মানুষের  জিবীকা ও জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধিতে সহায়ক হয়ে উঠেছে। যে বিশ্বাস সাধারন মানুষ বিজেপি সরকারের ওপর রেখেছিল তা অনেকাংশেই বাস্তবায়িত করতে সক্ষম হয়েছে এই অ্যাক্ট ইষ্ট পলিসির দ্বারা এবং আশা করা যায় যে বিশ্বাস এক সুদুরপ্রসারী রুপ নেবে এবং আগামী নির্বাচনের সময়েও এই বিশ্বাস বিজেপি-র সরকার গঠনের ক্ষেত্রে এক আশীর্বাদ হিসেবে দেখা যাবে।

Read Our Disclaimer Page

Note

  • আপনার মনের কথা শেয়ার করতে লেখা পাঠান write2mytripura@gmail.com এ ।
  • লেখা পাঠান নিম্নতম ৫০০ শব্দের মধ্যে ।
  • লেখা পাঠানোর আগে আমাদের Terms Condition And Privacy Policy সম্পর্কে জেনে নিন ।
  • বিষদ জানতে আমাদের মেইল করুন write2mytripura@gmail.com এ ।